খুলনার ‘রোগ’-এর দাওয়াই পাচ্ছেন না জয়াবর্ধনে

0
43

নিজে ছিলেন তুখোড় ব্যাটসম্যান। তখন ব্যাটিংয়ে খুঁটিনাটি সমস্যা দূর করেছেন এক তুড়িতে। অধিনায়ক হিসেবে কার্যকরী টোটকা দিয়েছেন দলের বোলিং ও ফিল্ডিংয়ে। মাহেলা জয়াবর্ধনেকে তাই শ্রীলঙ্কা দল এখনো মিস করে। সেই জয়াবর্ধনে এখন খুলনা টাইটানসের কোচ। যেহেতু দলের রণকৌশলের দ্রোণাচার্য, শিষ্যদের সমস্যার খুঁটিনাটি তাই দেখতে হচ্ছে এই লঙ্কানকে। বাতলে দিতে হচ্ছে সমাধানের পথ। কিন্তু জয়াবর্ধনের মতো ক্রিকেট-ব্যক্তিত্বও যে খুলনার ‘রোগ’-এর দাওয়াই খুঁজে পাচ্ছেন না!

কাল রাজশাহী কিংসের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছে খুলনা। বিপিএলে এ নিয়ে টানা তিন ম্যাচেই হারল তারা। বাকি ছয়টি দল যেখানে অন্তত একটি হলেও ম্যাচ জিতেছে সেখানে বেশ শক্তিশালী দল নিয়েও খুলনা জয়বঞ্চিত। ভুল কিংবা খামতি যাই হোক, সমস্যা আসলে কোথায়— কাল সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হতেই হলো জয়াবর্ধনেকে। খুলনা কোচ জবাবে ব্যাখ্যা করলেন শেষ তিন ম্যাচে শিষ্যদের পারফরম্যান্সের।

কাল হারের পর জয়াবর্ধনে বলেন, ‘প্রথম ম্যাচটা সম্ভবত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। রংপুরের বিপক্ষে আমরা খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছি। লক্ষ্যটা প্রায় তাড়া করে ফেলেছিলাম। কিন্তু পরে একটু ধীর গতির ব্যাটিং করায় ওদের বোলাররা ফিরে এসেছে। ম্যাচটা জিতলে সময়টা আমাদের পক্ষে থাকত এবং টুর্নামেন্টে শুরুটাও হতো ভালো।’ পরের দুই ম্যাচেও হারের জন্য ব্যাটিং ব্যর্থতাকে দুষেছেন জয়াবর্ধনে, ‘শেষ দুই ম্যাচে ব্যাটিংয়ের জন্য ডুবেছি। আজ (কাল) যেমন ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নেওয়া উচিত ছিল। মিরাজ দেখিয়েছে এই উইকেটে কীভাবে ব্যাট করতে হয়। আমরা ভেবেছিলাম ১৪০ রান এই উইকেটে যথেষ্ট। কিন্তু কেউ তা করার দায়িত্ব নেয়নি।’

তিন ম্যাচ খেলেও এখনো জয়ের মুখ না দেখায় খুলনা কোচ কি কিছুটা চিন্তিত। কাল ম্যাচ চলাকালীন জয়াবর্ধনের মুখের রেখাচিত্রে বিষয়টি ফুটে উঠলেও সংবাদ সম্মেলনে তা স্বীকার করলেন না শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট ইতিহাসে অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান, ‘কৌশলগতভাবে আমাদের উন্নতি করতে হবে। কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়াও জরুরি। কেবল তিনটি ম্যাচ শেষ হলো। আমি তাই খুব বেশি চিন্তিত নই। তবে অবশ্যই উন্নতির কিছু জায়গা আছে।’

দলের একাদশে সমন্বয় আনতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে জয়াবর্ধনেকে। খুলনা অবশ্য এ জন্য ভাগ্যকেও দুষতে পারে। চোট পেয়েছেন কার্লোস ব্রাফেট ও আলী খান। এ ছাড়া ইয়াসির শাহ ও লাসিথ মালিঙ্গা এখনো দলের সঙ্গে যোগ দেননি। সঠিক সমন্বয়ে একাদশ গড়ার কষ্টটা তাই স্বীকার করলেন জয়াবর্ধনে, ‘এটা নতুন দল। ভেবেছিলাম প্রথম ম্যাচের সমন্বয়টা ভালো। এরপর আলী খান চোটে পড়ল। তাঁর টুর্নামেন্টই শেষ হয়ে গেছে। ইয়াসির শাহ ও লাসিথ মালিঙ্গা দ্রুত যোগ দেবে দলের সঙ্গে। ওরা আমাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। এ ছাড়া কার্লোস চোট পরেছে। আমরা তাঁকে বিশ্রাম দিয়েছি। সময়টা তাই মোটেও আদর্শ নয়। দল যেভাবেই গড়া হোক, আমাদের পারফরম্যান্সে অবশ্যই উন্নতি দরকার।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here