নারায়ণগঞ্জে অপহৃত স্বামীকে উদ্ধার করতে অসহায় স্ত্রীর আহাজারি,সাংবাদিক ও পুলিশের সহযোগিতায় অপহৃত ব্যাক্তি উদ্ধার

0
40

মোহাম্মদ আল-আমিন বর্ণ : নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

অভিযোগ সূত্রে জানা যায় ১৯ জানুয়ারী শনিবার দুপুরে ফতুল্লার লামাপাড়া দরগাহ বাড়ি মসজিদ এলাকায় আলামিন, সুমন, সুজাত নামে ৬-৭জন অপহরণকারী, বিমল সরকার নামে এক স্টোকলর্ড ব্যাবসায়ীকে অপহরণ করে ৬০ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবী করে মারধর করতে থাকে।  অপহরণকারীরা বিমল সরকারকে বলে ৬০ হাজার টাকা মুক্তিপণ না দিলে মেরে ফেলবে।  অপহরণকারীরা বিমল সরকারকে বেধরক মারধর করতে থাকে।  ছুড়ি দিয়ে চোখের উপরের অংশে আঘাত করে জখম করে।  সাথে থাকা ২০ হাজার টাকা নিয়ে যায় অপহরণকারীরা।  বিমল সরকার প্রান বাঁচাতে স্ত্রীকে ফোন করেন।  হঠাৎ ৬০ হাজার টাকা কোথায় পাবে স্ত্রী? কোন উপায়ান্তর না পেয়ে স্বামীকে বাঁচাতে ছুটে যান ফতুল্লা মডেল থানায়।  কান্নায় ভেঙ্গে পরেন বিমল সরকারের অসহায় স্ত্রী।  
এ সময় বিষয়টি উপস্থিত সাংবাদিকদের নজরে আসলে, সাংবাদিকরা থানা পুলিশকে অবহিত করে বিমল সরকারের স্ত্রীকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান।  
এ সময় সাংবাদিকদের সাথে যুক্ত হোন ফতুল্লা মডেল থানার এএসআই রঞ্জন কুমার ও তার সঙ্গীয় ফোর্স।  অপহরণকারীরা পুলিশ ও সাংবাদিকদের আসার বিষয়টি টেরপেয়ে বিমল সরকারকে রেখে পালিয়ে যায়।  বিমল সরকার দীর্ঘদিন যাবত ফতুল্লার সস্তাপুর এলাকায় কমরআলী স্কুলের পাশের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকেন।  তার স্ত্রী একটি স্কুলে শিক্ষকতা করেন।  তার ২ টি পুত্র সন্তান রয়েছে।  বিমল সরকার স্টোকলর্ড এর ব্যাবসা করেন।  অপহরণকারীরা স্টোকলর্ড এর মাল আছে বলে বিমল সরকারকে আসতে বলে।  পরে বিমল সরকার আসলে অপহরণকারীরা বিমল সরকারকে একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে আটকে রেখে মারধর করে বলে স্টোকলর্ড এর কোন মাল নাই।   নগদ ৬০ হাজার টাকা আন, আর নইলে তোরে মাইরা ফেলমু।  এসময় বিমল সরকারের সাথে থাকা নগদ ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।  
এ বিষয়ে এলাকাবাসী বলেন, এটি বর্তমানে সন্ত্রাসীদের অভয়ারয়ান্য।  এই এলাকায় অনেক অপকর্ম ও বড় বড় অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে।  আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা চায় এলাকাবাসী এবং এই অপহরণকারীরা একটি সংঘবদ্ধ চক্র।  এরা প্রায়ই এমন অপহরণের ঘটনা ঘটায়, মারধর করে টাকা আদায় করে, চুরি,ছিনতাই, ডাকাতি সহ সকল অপরাধকর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে।  
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, কোন এক প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় থেকে এরা এই অপরাধ করে আসছে।  মূলত তাদের নির্দেশেই এই জঘন্য কাজ করে থাকে এই অপরাধীরা।  এই অপহরণকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানান এলাকাবাসী।  ঘটনাস্থল যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার এএসআই রঞ্জন কুমার জানান, খবর পেয়ে আমরা সাথে সাথে এসেছি।  অপহৃত ব্যাক্তিকে উদ্ধার করেছি।  ঘটনার সত্যতা পেয়েছি।  অপহরণকারীরা আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে গেছে।  অপহরণকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।  এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here